রবিবার , ৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | ২০শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ক‌্যাম্পাস
  5. খেলাধুলা
  6. ছাতক
  7. জাতীয়
  8. তথ্য প্রযুক্তি
  9. ফটো গ্যালারি
  10. ফিচার
  11. বিনোদন
  12. ভিডিও গ্যালারি
  13. মৌলভীবাজার
  14. রাজনীতি
  15. লাইফস্টাইল

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে ব্যক্তিগত আক্রোশে মিথ্যা মামলায় ঘর-বাড়ি ছাড়া এক নিরীহ শিক্ষক!

প্রতিবেদক
Today Sylhet24
ডিসেম্বর ৩, ২০২৩ ৫:৫৫ অপরাহ্ণ

মিথ্যা মামলায় সাজা ভোগী হয়েও রেহাই পাননি সাইত্রিশ বছরের মানুষ গড়ার কারিগর এলাকার বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী মাস্টার জ্যোতিষ চন্দ্র সরকার(৬৫)।

মান সম্মান বাঁচাতে ছাড়তে হলো তাঁকে ঘর বাড়িও ঘটনাটি ঘটেছে সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার রফিনগর ইউনিয়নের আলিপুর গ্রামে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার রফিনগর ইউনিয়নের আলিপুর গ্রামের সাথে পার্শ্ববর্তী গ্রাম দুর্লভপুর ও পুরন্দরপুর গ্রামের লোকজনদের মাঝে জমি ও ডোবা’র মালিকানা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিলো এক পর্যায়ে গত ০৬-০২-২০২৩ উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়ালে হতাহতের ঘটনা ঘটে। তবে ঘটনার দিন আলিপুর নিজ গ্রামে মাস্টার জ্যোতিষ চন্দ্র সরকার বাড়িতে না থাকলেও তাকে ওই সংঘর্ষের ঘটনায় হামলাকারি বানিয়ে পুরন্দরপুরের কবিন্দ্র সরকার বাদী হয়ে মামলায় ভুয়া ভাবে আসামি করেন।

এতে বিনা অপরাধে হাজতবাস করেন ওই প্রবীণ মাস্টার। জামিনে ছাড়া পেয়ে ষড়যন্ত্রের কবল থেকে নিরাপত্তার পথ বেঁচে নিতে শেষ সম্বল ঘর বাড়ি ছেড়ে উপজেলা সদরে তাঁর ছেলে জুষেন চন্দ্র সরকারের ভাড়াটে বাসায় আশ্রয় নিয়ছেন তিনি।


মাস্টার জ্যোতিষ চন্দ্র সরকার এ প্রতিনিধি’কে জানান, যেদিন ঘটনা ঘটে সেদিন সকাল দশটার দিকে আমি দিরাইয়ে আমার ছেলের বাসায় থেকে পৌরশহরের শুকুরনগরে নিজ ক্রয়কৃত জায়গায় মাটি ভরাটের কাজে নিয়োজিত ছিলাম।


মাস্টার জোতিষের এই বক্তব্য অনুযায়ী দিরাই পৌরশহরে অনুসন্ধান করলে চান্দপুর হারানপুর হাসপাতাল এলাকার কিছু লোকজন আলিপুরে সংঘর্ষেরদিন হাসপাতাল এরিয়ায় তাকে দেখেছেন বলে জানা গেছে।

এদিকে আলিপুরের অসংখ্য সাধারণ মানুষ মামলার আসামি সহ কজন জানান দুর্লভপুর ও পুরন্দরপুরের সাথে আমাদের সংঘর্ষেরদিন জ্যোতিষ মাস্টার এলাকায় ছিলেন না তবে তাকে ব্যক্তিগত আক্রোশে এই মামলায় ফাঁসানো হয়েছে।

সর্বশেষ - শীর্ষ সংবাদ