নোটিশ:
প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে, আগ্রহীগণ যোগাযোগ করুন!
২য় দফায় সিলেটের ৪৬ ইউপিতে আওয়ামী লীগের জয়জয়কার

২য় দফায় সিলেটের ৪৬ ইউপিতে আওয়ামী লীগের জয়জয়কার

নিজস্ব প্রতিবেদক: দ্বিতীয় দফায় সিলেটের ৪৬ ইউনিয়নের ৩৫টিতেই বিদ্রোহী আওয়ামীলীগ মনোনীয় চেয়ারম্যান প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন। ১১টিয়ে জয় বিএনপি প্রার্থীদের

ছাতকে আওয়ামী ৯, আওয়ামী বিদ্রোহী ৩, বিএনপি ১
ছাতক উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে বেসরকারিভাবে প্রাপ্ত ফলাফলে আওয়ামী লীগের ৯ জন প্রার্থী বেসরকারিভাবে বিজয়ী নির্বাচিত হয়েছেন। ১৩ ইউনিয়নের মধ্যে ৩টিতে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ৩ প্রার্থী এবং মাত্র ১টি ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপি প্রার্থী।

ইসলামপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আবদুল হেকিম বিজয়ী হয়েছেন। কালারুকা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী অদুদ আলম বিজয়ী হয়েছেন। খুরমা (উত্তর) ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিল্লাল আহমদ বিজয়ী হয়েছেন। খুরমা (দক্ষিণ) ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী আবদুল মছব্বির। ছাতক উপজেলার ছাতক সদর ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী সাইফুল ইসলাম। ছৈলা আফজালাবাদ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী গয়াছ আহমদ বিজয়ী হয়েছেন। দোলারবাজার ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী প্রার্থী শায়েস্তা মিয়া। ভাতগাঁও ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী আওলাদ হোসেন মাস্টার। সিংচাপইড় ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী সাহাব উদ্দিন সাহেল।

১৩ ইউনিয়নের মধ্যে ৩টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহীরা বিজয়ী হয়েছেন। জাউয়াবাজার ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ (বিদ্রোহী) মো. মুরাদ হোসেন বিজয়ী হয়েছেন, নোয়ারই ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ (বিদ্রোহী) প্রার্থী দেওয়ান আবদুল খালিক পীর ও সৈদেরগাঁও ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ (বিদ্রোহী) প্রার্থী আখলাকুর রহমান। আর একমাত্র বিজয়ী বিএনপি প্রার্থী হচ্ছেন চরমহল্লা ইউনিয়নের আবুল হাসনাত।

কোম্পানীগঞ্জ ও গোয়াইনঘাটে বিদ্রোহীসহ আ.লীগ ৯, বিএনপি ৪
সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ ও গোয়াইনঘাট উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ, ৫টিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী, দুইটিতে বিএনপি এবং দুইটিতে বিএনপি’র বিদ্রোহী প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন।
স্থানীয় সংবাদকর্মী, প্রার্থীদের এজেন্ট এবং আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র কন্ট্রোল রুম সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। তবে রাত ১০ টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় থেকে আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা করা হয়নি।
জানা যায়, গোয়াইনঘাটের আলীরগাঁওয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া হেলাল, নন্দিরগাঁওয়ে আমিরুল ইসলাম, ফতেহপুরে আমিনুর রশীদ চৌধুরী এবং কোম্পানীগঞ্জের পশ্চিম ইসলামপুরে আওয়ামী লীগের শাহ জামাল উদ্দিন বিজয়ী হয়েছেন।

গোয়াইনঘাটের পূর্ব জাফলংয়ে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী লুৎফুর রহমান লেবু, কোম্পানীগঞ্জের উত্তর রণিখাইয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান ফরিদ উদ্দিন, দক্ষিণ রণিখাইয়ে রোকন উদ্দিন, তেলিখালে বর্তমান চেয়ারম্যান কাজী আব্দুল ওদুদ আলফু মিয়া এবং ইছাকলসে কুটি মিয়া বিজয়ী হয়েছেন।

বিএনপি’র প্রার্থী হিসাবে গোয়াইনঘাটের রুস্তমপুরে শাহাব উদ্দিন ও তোয়াকুলে খালেদ আহমদ বিজয়ী হয়েছেন। বিএনপি’র বিদ্রোহী প্রার্থী হিসাবে বিজয়ীরা হলেন- গোয়াইনঘাটের পশ্চিম জাফলংয়ে হোসেন আহমদ এবং কোম্পানীগঞ্জের পূর্ব ইসলামপুরে বর্তমান চেয়ারম্যান বাবুল মিয়া।

বৃহস্পতিবার গোয়াইনঘাট উপজেলার ৭টি এবং কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।
জুড়ীতে আওয়ামী লীগ ৩, বিএনপি ২

জুড়ী উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ৩টিতে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। বাকি দুটি ইউনিয়নে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন।

উপজেলার পূর্ব জুড়ী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সালেহ উদ্দিন ৪৬৭৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মইনুল ইসলাম পেয়েছেন ৩৯৩৭ ভোট।

পশ্চিম জুড়ী ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী শ্রীকান্ত দাস ৬১৬১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রার্থী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী আনফর আলী ২৩৫৪ ভোট পেয়েছেন।
গোয়ালবাড়ি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ সমর্থিত বর্তমান চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন আহমদ নৌকা প্রতীক নিয়ে ৫৮৩৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মোস্তাক খান ৪৩৪৬ পেয়েছেন।
সাগরনাল ইউনিয়নে নিজের অবস্থান নিশ্চিত করেছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী এমদাদুল ইসলাম চৌধুরী লিয়াকত। তিনি ৫৬৫২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল হান্নান চৌধুরী ৩০৪২ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন।

জুড়ী উপজেলার জাফরননগর ইউনিয়নে বিএনপি’র প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে মাসুম রেজা বিজয়ী হয়েছেন। কেন্দ্রের প্রাপ্ত ফলাফলে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মাসুম রেজা ৬৪৮৮ টি ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী বিএনপি বিদ্রোহী মো. মুছলেহ উদ্দিন আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪৫৬৭ টি ভোট।

বড়লেখায় বিদ্রোহীসহ আওয়ামী লীগ ৮, বিএনপি ২
বড়লেখা উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে অনুষ্ঠিত নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী বিদ্রোহী প্রার্থীসহ আওয়ামী লীগের ৮জন প্রার্থী চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। আর বিএনপির ২জন জয়ী হয়েছেন।
আওয়ামী লীগের নির্বাচিত চেয়ারম্যান হলেন, বর্ণি ইউনিয়নে এনাম উদ্দিন, নিজবাহাদুরপুর ইউনিয়নে ময়নুল হক, উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নে আহমদ জুবায়ের লিটন, দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউনিয়নে সাহাব উদ্দিন (বিদ্রোহী), সদর ইউনিয়নে সায়েব আহমদ, তালিমপুর ইউনিয়নে বিদ্যুত কান্তি দাস, দক্ষিণভাগ উত্তর (কাঁঠালতলী) এনাম উদ্দিন, দক্ষিণভাগ দক্ষিণ আজির উদ্দিন।।

বিএনপির বিজয়ীরা হলেন, সুজানগর ইউনিয়নে নছিব আলী ও দাসেরবাজার ইউনিয়নে কমর উদ্দিন।

আজমিরিগঞ্জে আওয়ামী লীগ ৩, আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী ২
আজমিরীগঞ্জ উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে ৩টিতে আওয়ামী লীগ ও ২টিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।
উপজেলার তিনটি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন বিরাট ইউনিয়নে আব্দুল কুদ্দুস সেন, বদলপুর ইউনিয়নে সুসেনজিত চৌধুরী ও কাকাইলছেও ইউনিয়নে নূরুল হক ভূঁইয়া।
দুইটি ইউনিয়নে বিজয়ী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা হলেন জলসুখা ইউনিয়নে খেলু মিয়া ও শিবপাশা ইউনিয়নে আলী আমজাদ তালুকদার।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved © 2022 Todaysylhet24.com
Desing & Developed BY DHAKATECH.NET