নোটিশ:
প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে, আগ্রহীগণ যোগাযোগ করুন!
মিছিল, স্লোগান, হর্ন, পটকা- হঠাৎ গর্জে ওঠল রাতের সিলেট

মিছিল, স্লোগান, হর্ন, পটকা- হঠাৎ গর্জে ওঠল রাতের সিলেট

নিজস্ব প্রতিবেদক: বুধবার সন্ধ্যা, শহর সিলেটের রাস্তাঘাট হুট করে যেন হয়ে পড়ল অজ-পাড়াগাঁ। মানুষজন নেই খুব একটা। আর যে ক’জন মানুষ ব্যস্ত প্রাত্যহিকতায় তাদেরও যেন বাড়ি ফেরার তাড়া খুব!

সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা থেকে বাংলাদেশের খেলা। এশিয়া কাপের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে পাকিস্তানের মুখোমুখি বাংলাদেশ। জিতলেই স্বপ্নের ফাইনাল! রাস্তা ফাঁকা, দোকানগুলোর সাটার বন্ধ। যেনো ছুটির রাত। যেনো দূরে কোথাও বেড়াতে সব নগরবাসী।

অথচ বাংলাদেশর জয়ের পরপরই বদলে গেলো দৃশ্যপট। মাহমুদ্দুল্লাহ বলটা সীমা ছাড়া করে ভূ-দৌড় দিয়ে চিৎ হয়ে পড়ে গেলেন মাটিতে। তখনো মাটি থেকে ওঠতে পারেননি বাংলাদেশের পাকিস্তান বধের এই অন্যতম নায়ক, অথচ নগরীর সড়কে যে যেদিকে পারে দৌড়াদৌড়ি শুরু করে দিয়েছে। মুখে তাদের একটাই স্লোগান বাংলাদেশ, বাংলাদেশ। কেউবা জয় বাংলা বলেও হাঁক দিচ্ছে।

এভাবে বিচ্ছিন্ন ভাবে যে যার মতো দৌড়াতে থাকা মানুষগুলো জড়ো হতে হতে রূপ নিলো মিছিলের। নানা দিক থেকে আসছে মিছিল। কোনটার গন্তব্য জিন্দাবাজার, কোনটার আম্বরখানা, কোনোটার আবার রিকাবিবাজার। মোটর সাইকেল নিয়েও বের হলো মিছিল। পাড়ার গলি থেকে শুরু করে ব্যস্ত পয়েন্ট, প্রতিটি স্থানেই কিছুক্ষণ পর পর আসতে থাকলো ছোট বড় মিছিল।

কেউ থালবাটি হাতে বাদ্য বাজিয়ে, কেউ পতাকা হাতে ভুভুজেলা বাজিয়ে কেউবা চিৎকার করে স্লোগান দিতে লাগলো প্রিয় দলের হয়ে। অনেককে খুশিতে মিষ্টি বিতরণ করতেও দেখা গেলো।

মিনিট কয়েক আগে ফাঁকা জিন্দাবাজারে কোথা থেকে যেনো মুহূর্তেই জড়ো হয়ে গেলো অসংখ্য মানুষ। যেনো কোনো এক   বাঁশিওয়ালা ডেকে নিয়ে এসেছেন তাদের। বাঁশিওয়ালাই তো। আমাদের ক্রিকেটাররা তো আমাদের হ্যামিলনের বাঁশিওলাই। নানান দুঃখ কষ্টে জর্জরিত এই আমাদের তারা বারবার ভাসান আনন্দের সাগরে। বিভক্ত-দ্বন্দ্ব-মুখর জাতিকে বাঁধেন ঐক্যের বাধনে। আরেকবার যেমনটি ঘটলো বুধবার রাতে।

মিছিল, স্লোগান, মোটরসাইকেলের হর্ন, পটকার শব্দে জেগে উঠলো রাতের নগরী। বিজয় উৎসব করলো ক্রিকেটপ্রেমী বাঙালি। স্বাধীনতার মাসে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এমন মধুর জয় উদযাপন করলো সবাই।

রাতে বাড়ে। তবু আসতে থাকে খণ্ড খণ্ড মিছিল। তবু ভেসে আসে স্লোগানের শব্দ। এই তো, দূরে কোথাও পটকা ফুটানো হচ্ছে। মোটরসাইকেলের হর্ন বাজিয়েই চলছে দুরন্ত তরুণের দল। এ আনন্দ যেনো বাঁধভাঙ্গা। এ উদযাপন যেনো কিছুতেই শেষ হবার নয়।

বিজয় মিছিল হয়েছে শাবিপ্রবি, সিকৃবি, সিওমেক ও ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ ক্যাম্পাসেও।

পাকিস্তান বধ তো হলো। এবার পালা ভারতের। দেখা হবে ফাইনালে। শুরু হোক ভারত বধের প্রস্তুতি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved © 2022 Todaysylhet24.com
Desing & Developed BY DHAKATECH.NET