নোটিশ:
প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে, আগ্রহীগণ যোগাযোগ করুন!
জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রথম বার সিজারে সন্তান প্রসব

জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রথম বার সিজারে সন্তান প্রসব

 টুডেসিলেট ডেস্ক ঃহাসপাতাল প্রতিষ্ঠার দীর্ঘ ৫৮ বছর পর সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সিজারিয়ান পদ্ধতির কার্যক্রম চালু করা হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সিজারের মাধ্যমে এক কন্যা সন্তান প্রসব হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রথম বারের মতো এই হাসপাতালে সিজার অপারেশন করা হয়।

জানা যায়, ১৯৬৪ সালে জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০০৫ সালে বিএনপি সরকারের আমলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ৩১ শয্যা থেকে ৫১ শয্যায় উন্নীত হয়। এরপর বিভিন্ন সময় নানা উদ্যোগ নিলেও সিজারিয়ান অপারেশনের সুযোগ তৈরি হয়নি। ৪ মাস আগে একজন গাইনি কনসালটেন্ট হাসপাতালে নিয়োগ পাওয়ায় সিজারিয়ান অপারেশনের সুযোগ তৈরি হয়।

 

উপজেলার সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়নের তেঘরিয়া গ্রামের মতিউর রহমান ও ফাতেমা খাতুন দম্পতি সিজারের মাধ্যমে প্রথমবারের মতো কন্যা সন্তানের জন্ম দেয়। বৃহস্পতিবার বিকেলে জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের গাইনি কনসালটেন্ট ডাক্তার হাসিনা চৌধুরীর নেতৃত্বে সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে তাদের কন্যা সন্তান হয়। নবজাতক ও তাঁর মা সুস্থ রয়েছেন।

জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার মধু সুধন ধর জানান,  হাসপাতালে প্রথমবারের মতো সিজারের মাধ্যমে সন্তান প্রসব হয়েছে। মা ও নবজাতক সুস্থ রয়েছে। এখন থেকে গর্ভবতি মায়েরা প্রয়োজনে নিয়মিত সিজার করতে পারবেন।

 

 

হাসপাতালে সিজারিয়ান পদ্ধতি চালু হওয়ায় নবজাতক সন্তান ও তাঁর পরিবারকে অভিনন্দন জানাতে হাসপাতালে ছুটে যান জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজেদুল ইসলাম ও থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমানসহ এলাকার জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।

 

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved © 2022 Todaysylhet24.com
Desing & Developed BY DHAKATECH.NET